যেদিন আমি হারিয়ে যাব, বুঝবে সেদিন বুঝবে, অস্তপারের সন্ধ্যাতারায় আমার খবর পুছবে -

Saturday, 29 May 2010

চৈতী হাওয়া

হারিয়ে গেছ অন্ধকারে-পাইনি খুঁজে আর,
আজ্‌কে তোমার আমার মাঝে সপ্ত পারাবার!
আজ্‌কে তোমার জন্মদিন-
স্মরণ-বেলায় নিদ্রাহীন
হাত্‌ড়ে ফিরি হারিয়ে-যাওয়ার অকূল অন্ধকার!
এই -সে হেথাই হারিয়ে গেছে কুড়িয়ে-পাওয়া হার!

শূন্য ছিল নিতল দীঘির শীতল কালো জল,
কেন তুমি ফুটলে সেথা ব্যথার নীলোৎপল?
আঁধার দীঘির রাঙলে মুখ,
নিটোল ঢেউ-এর ভাঙলে বুক,-
কোন্‌ পূজারী নিল ছিঁড়ে? ছিন্ন তোমার দল
ঢেকেছে আজ কোন্‌ দেবতার কোন্‌ সে পাষাণ-তল?

অস্ত-খেয়ার হারামাণিক-বোঝাই-করা না’
আস্‌ছে নিতুই ফিরিয়ে দেওয়ার উদয়-পারের গাঁ
ঘাটে আমি রই ব’সে
আমার মাণিক কই গো সে?
পারাবারের ঢেউ-দোলানী হান্‌ছে বুকে ঘা!
আমি খুঁজি ভিড়ের মাঝে চেনা কমল-পা!

বইছে আবার চৈতী হাওয়া গুম্‌রে ওঠে মন,
পেয়েছিলাম এম্‌নি হাওয়ায় তোমার পরশন।
তেম্‌নি আবার মহুয়া-মউ
মৌমাছিদের কৃষ্ণ-বউ
পান ক’রে ওই ঢুল্‌ছে নেশায়, দুল্‌ছে মহুল বন,
ফুল-সৌখিন্‌ দখিন হাওয়ায় কানন উচাটন!

প’ড়ছে মনে টগর চাঁপা বেল চামেলি যুঁই,
মধুপ দেখে যাদের শাখা আপ্‌নি যেত নুই।
হাস্‌তে তুমি দুলিয়ে ডাল,
গোলাপ হ’য়ে ফুটতো গাল
থর্‌কমলী আঁউরে যেত তপ্ত ও-গাল ছুঁই!
বকুল শাখা-ব্যকুল হ’ত টলমলাত ভুঁই!

চৈতী রাতের গাইত’ গজল বুলবুলিয়ার রব,
দুপুর বেলায় চবুতরায় কাঁদত কবুতর!
ভুঁই- তারকা সুন্দরী
সজনে ফুলের দল ঝরি’
থোপা থোপা লা ছড়াত দোলন-খোঁপার’ পর।
ঝাজাল হাওয়ায় বাজত উদাস মাছরাঙার স্বর!

পিয়ালবনায় পলাশ ফুলের গেলাস-ভরা মউ!
খেত বঁধুর জড়িয়ে গলা সাঁওতালিয়া বউ!
লুকিয়ে তুমি দেখতে তাই,
বলতে, ‘আমি অমনি চাই!
খোঁপায় দিতাম চাঁপা গুঁজে, ঠোঁটে দিতাম মউ!
হিজল শাখায় ডাকত পাখি “ বউ গো কথা কউ”

ডাকত ডাহুক জল- পায়রা নাচত ভরা বিল,
জোড়া ভুর” ওড়া যেন আসমানে গাঙচিল
হঠাৎ জলে রাখত্‌ে পা,
কাজলা দীঘির শিউরে গা-
কাঁটা দিয়ে উঠত মৃণাল ফুটত কমল-ঝিল!
ডাগর চোখে লাগত তোমার সাগর দীঘির নীল!

উদাস দুপুর কখন গেছে এখন বিকেল যায়,
ঘুম জড়ানো ঘুমতী নদীর ঘুমুর পরা পায়!
শঙ্খ বাজে মন্দিরে,
সন্ধ্যা আসে বন ঘিরে,
ঝাউ-এর শাখায় ভেজা আঁধার কে পিঁজেছে হায়!
মাঠের বাঁশী বন্‌-উদাসী ভীম্‌পলাশী গায়অ

বাউল আজি বাউল হ’ল আমরা তফাতে!
আম-মুকুলের গুঁজি-কাঠি দাও কি খোঁপাতে?
ডাবের শীতল জল দিয়ে
মুখ মাজ’কি আর প্রিয়ে?
প্রজাপতির ডাক-ঝরা সোনার টোপাতে
ভাঙা ভুর” দাও কি জোড়া রাতুল শোভাতে?

বউল ঝ’রে ফ’লেছ আজ থোলো থোলো আম,
রসের পীড়ায় টস্‌টসে বুক ঝুরছে গোপাবজাম!
কামরাঙারা রাঙল ফের
পীড়ন পেতে ঐ মুখের,
স্মরণ ক’রে চিবুক তোমার, বুকের তোমার ঠাম-
জামর”লে রস ফেটে পড়ে, হায়, কে দেবে দাম!

ক’রেছিলাম চাউনি চয়ন নয়ন হ’তে তোর,
ভেবেছিলুম গাঁথ্‌ব মালা পাইনে খুঁজে ডোর!
সেই চাহনি নীল-কমল
ভ’রল আমার মানস-জল,
কমল-কাঁটার ঘা লেগেছে মর্মমূলে মোর!
বক্ষে আমার দুলে আঁখির সাতনরী-হার লোর!

তরী আমার কোন্‌ কিনারায় পাইনে খুঁজে কুল,
স্মরণ-পারের গন্ধ পাঠায় কমলা নেবুর ফুল!
পাহাড়তলীর শালবনায়
বিষের মত নীল ঘনায়!
সাঁঝ প’রেছে ঐ দ্বিতীয়ার-চাঁদ-ইহুদী-দুল!
হায় গো, আমার ভিন্‌ গাঁয়ে আজ পথ হ’য়েছে ভুল!

কোথায় তুমি কোথায় আমি চৈতে দেখা সেই,
কেঁদে ফিরে যায় যে চৈত-তোমার দেখা নেই!
কন্ঠে কাঁদে একটি স্বর-
কোথায় তুমি বাঁধলে ঘর?
তেমনি ক’রে জাগছে কি রাত আমার আশাতেই?
কুড়িয়ে পাওয়া বেলায় খুঁজি হারিয়ে যাওয়া খেই!

পারাপারের ঘাটে প্রিয় রইনু বেঁধে না’,
এই তরীতে হয়ত তোমার প’ড়বে রাঙা পা!
আবার তোমার সুখ-ছোঁওয়ায়
আকুল দোলা লাগবে না’য়,
এক তরীতে যাব মোরা আর-না-হারা গাঁ
পারাপারের ঘাটে প্রিয় রইনু বেঁধে না’।।

The Summer Air
Translation: Abdul Hakim

Thou art lost in darkness, and I do not find thee,
Between thee and me today is the difference
of seven seas�
Today is thy birthday �
On the sea-shore of Memory sleepless
grope for the endless darkness That
envelops thee,
It is here that thou art lost whom I found
as a garland lying unclaimed on the path,

Empty was the cool, black water of the bottomless lake,
Why didst thou blossom there like a lotus of pain?
Thou didst radiate the face of the
dark lake,
Agitate the breast of the unruffled wave,
Who is the worshipper that tore off?
What stony floor of what deity is
now covered with thy petals?

The boat laden with the lost treasure
Of the sunset ferry cometh every
morn to return it to the hamlet
of sunrise �
I stay on the place,
Where's my treasure, Oh?
The waves of the river mercilessly strike
on my breast,
Amid the rowd, I look for thy ever known
lotus like feet.

Again bloweth the summer breeze
and my mind is in tumult,
Such air once wafted thee to me �
Again the black bride of the bees
Sucks the Mahua-honey and gets
intoxicated and the whole forest
of Mahua-trees seems to dance
in ecstasy. [end of page 199]

The south wind enamoured of
flowers sends a thrill through the
entire woodland.
I remember Tagar, Chapa, Bel, Chameli, Jui,
Flowers whose branches willingly yielded
to the honey-making Bee �
And thou dist smile while bending the branch,
And blush as red as the rose �
The land-lily felt proud of a touch of
thy warm cheeks,
The Bakul branch became anxious
and the earth underfeed seemed to tremble �

The Nightingale sang the Gaze of Mid-summer night,
At mid-day was heard the wail of the pigeon
The dew-drops lovely as stars
Falling from the cluster of Sajney flowers
Seemed to scatter lumps of
paddy over swinging braided locks.
In the hot air was heard the lone voice
of the king-fisher.


Beneath the peyal tree, a full cup
of honey collected from the Palash flowers,
The wild Santal girl drank while clinging
to the neck of her lover �
From behind the scene thou didst see it,
And say, "I like it"
In thy braided heir I did then put a
Champa flower and on thy lip, honey �
And from the branch of a Hizal tree
came the call of a bird;
"0 my bride! Speak out!"

The gallinule shouted and the water-pigeon
danced in the marshy land full of water,
In the sky the sea-gull looking
like two joint eyebrows,
Suddenly to put feet in the water,
The lake of dark-blue water trembled �
And the lotus opened her eyes �
The vast dark-blue lake seemed
to touch thy large eyes �

The languid noon was long [end of page 200]
past, now afternoon too is over,
Sleep renders sluggish the feet of the
Ghumti river wearing a string of small bells �
The conch is blown in the temple,
Evening descends on the forest,
O, who hath pasted wet darkness
on the branches of the Jhaw tree?
The lyre of the meadow singeth a
fascinating melancholy note �

The blossoms themselves become
wild, where are we?
Dost thou put mango-blossom
in thy braided look?
Or dost thou, Dear, wash thy face
again with the cool water of green coconut?
Or dost thou join the separated
eyebrows with the golden fragment
of the butterfly's wings to make them
radiantly beautiful. .

In place of blossoms there appear today
mangoes in many a cluster, .
Rose-berries bursting with rich juice
fall down,
Kamranga fruits take a red hue for
a stout sweet bite of thine �
Remembering thy cheeks, the gratefulness
of thy breast �
Zamrul fruits full of juice to the brim
cry 'alas' who will appreciate them �

From thy eyes I collected looks,
Intending to weave a garland - but
now I miss the thread.
Those looks in the shape of blue lotuses
Fill today the lake of my heart,
The lotus thorn cuts me to the quick,
And my breast is be-decked with
the Sat-nari garland made of tears �

I am groping in darkness for the harbour
Where lies my bark,
From across the sea of memory cometh
fragrance from the orange blossoms [end of page 201]
In the Shal woods on the outskirts of the hill
Poison-like blue color deepens,
There appears at dusk the moon
looking like Yahudi earring.

Alas! I roam benighted now in another village�
Where art thou? Where am I? We met
last in Chaitra last,
The same month again goes way wailing
for thee - Where art thou?
In my throat one voice and ane alone goes wailing �
Where dost thou build thy hut?
Dost thou as before keep wakeful
night in expectation of me?
I seek for the lost thread where I first found it,
At the ferry, Dear, I do moor my boat,

Perchance in this boat thou wilt place
thy rosy feet,
Again thy happy, magic touch
Will give the boat a trilling start,
The self-same boat will carry both
to-a-village never-to-be-lost,
At the ferry ,Dear, I do keep my boat. ,

No comments:

Post a Comment