যেদিন আমি হারিয়ে যাব, বুঝবে সেদিন বুঝবে, অস্তপারের সন্ধ্যাতারায় আমার খবর পুছবে -

Sunday, 30 May 2010

প্রলয়োল্লাস

তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
ঐ নতুনের কেতন ওরে কাল- বোশেখীর ঝড়।
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!

আসছে এবার অনাগত প্রলয়- নেশার নৃত্য পাগল
সিন্ধুপারের সিংহ- দ্বারে ধমক হেনে ভাংল আগল।
মৃত্যু- গহন অন্ধ-কুপে
মহাকালের চন্ড- রূপে-
ধুম-ধুপে
বজ্র-শিখার মশাল জ্বেলে আসছে ভয়ংকর-
ওরে ঐ হাসছে ভয়ংকর।
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!


ঝামর তাহার কেশের দোলায় ঝাপটা মেরে গগন দুলায়,
সর্বনাশা জ্বালা- মুখী ধুমকেতু তার চামর ঢুলায়।
বিশ্বপাতার বক্ষ-কোলে
রক্ত তাহার কৃপাণ ঝোলে
দোদুল দোলে
অট্ট্রোলের হট্টগোলে স্তব্ধ চরাচর-
ওরে ঐ স্তব্ধ চরাচর।
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!

দ্বাদশ রবির বহ্নি-জ্বালা ভয়াল তাহার নয়ন- কটায়,
দিগন্তরের কাঁদন লুটায় পিঞ্জল তার ত্রস্ত জটায়।
বিন্দু তাহার নয়ন জলে
সপ্ত মহাসিন্ধু দলে
কপোল-তলে।
বিশ্ব-মায়ের আসন তারি বিপুল বাহুর' পর-
হাঁকে ঐ ''জয় প্রলয়ংকর!"
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!


মাভৈঃ, মাভৈঃ! জগৎ জুড়ে প্রলয় এবার ঘনিয়ে আসে।
জরায় মরা মুমুর্ষদের প্রান-লুকানো ঐ বিনাশে।
এবার মহা নিশার শেষে
আসবে উষা অরুণ হেসে
করুণ বেশে।
দিগম্বরের জটায় লুটায় শিশু চাঁদের কর,
আলো তার ভরবে এবার ঘর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!


ঐ সে মহাকাল সারথি রক্ত- তড়িৎ চাবুক হানে,
রণিয়ে ওঠে হ্রেষার কাঁদন বজ্র- গানে ঝড় তুফানে।
ক্ষুরের দাপট তারায় লেগে উল্কা ছুটায় নীল খিলানে।
গগন-তলের নীল খিলানে।
অন্ধ কারার বন্ধ কুপে
দেবতা বাঁধা যজ্ঞ-যুপে
পাষান- স্তুপে!
এইতো রে তার আসার সময় ঐ রথ- ঘর্ঘর-
শোনা যায় ঐ রথ ঘর্ঘর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!


ধ্বংস দেখে ভয় কেন তোর?- প্রলয় নতুন সৃজন- বেদন।
আসছে নবীন- জীবন- হারা অসুন্দরে করতে ছেদন।
প্রলয় বয়েও আসছে হেসে-
মধুর হেসে।
ভেঙ্গে আবার গড়তে জানে সে চির- সুন্দর।
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!


ঐ ভাঙ্গা- গড়া খেলা যে তার কিসের আবার ডর?
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
বধুরা প্রদীপ তুলে ধর!
কাল ভয়ংকরের বেশে এবার ঐ আসে সুন্দর।
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!
তোরা সব জয়ধ্বনী কর!


The Ecstasy of Destruction
(Original: Proloyollash)
Kazi Nazrul Islam
Translation: Kabir Chowdhury

Come, make merry and rejoice.
There rages the summer storm
flying the flag of the New and the Young,

There comes he who had not come so long;
Dancing merrily
drink we will the joy of destruction.
There comes the Terrible
like the fierce executioner of eternal time
across the dark well of death
through smouldering smoke
lighting the torch of thunder.
There, listen to his ringing laughter.
Come, make merry and rejoice!

The wavy locks of his hair
make the sky rock and swing.
Even the ominous comet is at his service.
His blood, like an unsheathed sword,
rocks the bosom of the father of the universe.
Look, this wild tumultuous tunnoil
has made the sky and the earth still and numb
Come, make merry and rejoice.

A dozen suns glitter and shine in his burning eyes
And the sorrows of the world cluster in his
tangled and disheveled hair.
A single drop of his tear
makes the seven seas roll and swell.
In his giant arms he crakles the mother-earth
and cries out, "Welcome, Destruction!"
Come, comrades, make merry and rejoice, '

Oh, have no fear!
The deluge will soon overtake the universe.
The final hour is fast drawing near.
The rotting old and the dying decrepit
will now be wiped out for good.
Now at last at the end of the long night of darkness
The glorious dawn will come with a smile
in her soft and tender dress.
Look, there the young moon shines in his unkempt hair.

Its light will fill your room
and make it glow with a strange radiance,
Come, make merry and rejoice!
There he comes flashing his whip of blood and lightning,
directing the passage of eternity.
The neighing of his horse reverberates in the stormy wind
and in the song of thunder.
The blast of his hoofs hits the stars
and scatters them shooting
through the columns of the blue-domed sky.
The gods are all lying in the dead well
of a dark dungeon.

They are tied to the cold stony pillar
of the sacriticial altar.
Indeed this is the time for him
to come triumphantly riding his gorgeous chariot.
O comrades, come, make merry and rejoice!
Why should the sight of destruction frighten you?
All this upheaval is but the birth pain
of a new creation.
There comes the bold new youth
eager to wipe out all that is ugly and decayed.
He comes with' his unkempt hair and careless dress
on the wings of the Deluge
with a smile on his lips.
He is the eternal beauty
who knows how to destroy and build again,

Come, make merry and rejoice!
What fear has
for whom all this destruction and rebuilding
is but a game?
Come, make merry and rejoice,
and welcome the Beautiful
who comes today in the garb of the Terrible.

Courtesy: Mohammad Nurul Huda. Poetry of Kazi Nazrul Islam in English Translation [Dhaka: Nazrul Institute, 2000). pp. 4-6.

1 comment:

  1. একটা লাইন মিসিং। :(

    আসছে নবীন- জীবন- হারা অসুন্দরে করতে ছেদন।
    প্রলয় বয়েও আসছে হেসে-

    এই দুই লাইনের মাঝে একটা লাইন আছে।
    এই অংশ টা এমন হবেঃ

    "আসছে নবীন- জীবন- হারা অসুন্দরে করতে ছেদন।
    তাই সে এমন কেশে বেশে
    প্রলয় বয়েও আসছে হেসে-"

    ReplyDelete